শিরোনাম :
কোটা আন্দোলন : কক্সবাজারে আওয়ামীলীগ, জাসদ, জাতীয় পার্টির কার্যালয়, মসজিদ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গাড়ি ভাংচুর; ছাত্রলীগ ৪ নেতাকে মারধর কক্সবাজারে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বিক্ষোভ মিছিল চট্টগ্রামে কোটা আন্দোলনে সংর্ঘষে নিহত ছাত্র আকরামের বাড়ী কক্সবাজারের পেকুয়ায় পেকুয়ায় দূর্যোগ প্রস্তুতি ও সাড়াদান বিষয়ক কর্মশালা ক্রিস্টাল মেথ আইস উদ্ধার পর্যটন শহরেও উত্তাপ ছড়ালো কোটা আন্দোলনকারীরা উল্টো রথযাত্রা মহোৎসব ১৫ জুলাই টেকনাফে জেন্ডার ও বিরোধ সংবেদনশীল সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণ মিয়ানমারের বিকট শব্দে আতংকে টেকনাফবাসী টেকনাফে ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্যের আবেদন

দীর্ঘ ১৮ বছর পর কক্সবাজার জেলা যুব মহিলা লীগের সম্মেলন : ঘোষণা হয়নি নতুন কমিটি: কর্মীদের মাঝে ক্ষোভ

নিউজ রুম / ৮ বার পড়ছে
আপলোড : বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০:৪৬ অপরাহ্ন

বিডি প্রতিবেদক :

দীর্ঘদিন ধরে দল ক্ষমতায় থাকার পরও ১৮ বছর পরে অনুষ্ঠিত হলো কক্সবাজার জেলার যুব মহিলা লীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল। কমিটি নিয়ে বনাবনী না হওয়ায় ঘোষণা হয়নি নতুন কমিটি। সাধারণ কর্মীদের মাঝে এই নিয়ে ক্ষোভ বিরাজ করছে। বর্তমান কমিটির সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা চৌধুরী লোনা বলেছেন, বর্তমান সভাপতির অনেক বয়স হয়েছে, তিনি যুব মহিলা লীগের মতো সংগঠনের সাথে কোনোভাবেই থাকতে পারেন না। ওনার উচিত যুব মহিলা লীগকে ছেড়ে দিয়ে মূল দলে চলে যাওয়া।
১৯ জুলাই কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের অডিটরিয়ামে বহুল প্রত্যাশিত এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনকে ঘিরে জেলা ও উপজেলার পর্যায়ের যুব মহিলা লীগের নেতাকর্মীদের ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়। নেতাকর্মীদের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠে সম্মেলনস্থল।
এই সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় ধর্মবিষয়ক সম্পাদক এড. সিরাজুল মোস্তফা। উদ্বোধক ছিলেন, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য অপু উকিল।
বিশেষ অতিথি ছিলেন, কক্সবাজার-সদর রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, মহেশখালী-কুতুবদিয়ার আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, যুব মহিলা লীগের সহ-সভাপতি ও সংসদ সদস্য আদিবা আনজুম মিতা, কক্সবাজারের সংরক্ষিত আসনের মহিলা সংসদ সদস্য কানিজ ফাতেমা মোস্তাক, সহ-সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর এসাইনমেন্ট বিষয়ক কর্মকর্তা আফরোজ মনসুর লিপি, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এড. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, সাবেক সংরক্ষিত সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা এথিন রাখাইন।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এড. রনজিৎ দাশ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান কায়সারুল হক জুয়েল, কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম।
সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বক্তারা দলের আন্দোল-সংগ্রাম ও উন্নয়নে যুব মহিলা লীগের অবদানের কথা তুলে ধরেন। একই সাথে শক্তিশালী নতুন কমিটি গঠন করে আগামী জাতীয় নির্বাচনসহ দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশস্ত ভ্যানগার্ড হিসেবে কাজ করতে জেলা যুব মহিলা লীগের নেতাকর্মীদের আহবান জানান।
এসময় দেশের উন্নয়নের আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনা সরকারের নানা উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন।
সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি আয়েশা সিরাজ এবং অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা চৌধুরী লুনা। সঞ্চালনা করেন নারী নেত্রী তাসলিমা রুমানা।
সকাল ১১টায় জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমের অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন অতিথিরা। এরপর শুরু হয় সম্মেলন। দুপুর ২টার শুরু হয় কাউন্সিল। কাউন্সিলে সভাপতি দু’জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে তিন প্রার্থীতা ঘোষণা করেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের পরামর্শে প্রার্থীরা নিজেদের মধ্যে সমঝোতা করে তাহমিনা চৌধুরী লুনা সাধারণ সম্পাদক হিসেবে এককভাবে মনোনিত করলেও সভাপতি নিয়ে সমঝোতা হয়নি। তাই কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ কমিটি ঘোষণা না করেই অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন।
আঠারো বছর পরে সম্মেলন ও কাউন্সিলের পর কমিটি না হওয়ায় সাধারণ কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।


আরো বিভিন্ন বিভাগের খবর