শিরোনাম :
কোটা আন্দোলন : কক্সবাজারে আওয়ামীলীগ, জাসদ, জাতীয় পার্টির কার্যালয়, মসজিদ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গাড়ি ভাংচুর; ছাত্রলীগ ৪ নেতাকে মারধর কক্সবাজারে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বিক্ষোভ মিছিল চট্টগ্রামে কোটা আন্দোলনে সংর্ঘষে নিহত ছাত্র আকরামের বাড়ী কক্সবাজারের পেকুয়ায় পেকুয়ায় দূর্যোগ প্রস্তুতি ও সাড়াদান বিষয়ক কর্মশালা ক্রিস্টাল মেথ আইস উদ্ধার পর্যটন শহরেও উত্তাপ ছড়ালো কোটা আন্দোলনকারীরা উল্টো রথযাত্রা মহোৎসব ১৫ জুলাই টেকনাফে জেন্ডার ও বিরোধ সংবেদনশীল সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণ মিয়ানমারের বিকট শব্দে আতংকে টেকনাফবাসী টেকনাফে ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্যের আবেদন

রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সার্বিক পরিস্থিতি দেখলেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার

নিউজ রুম / ৬ বার পড়ছে
আপলোড : বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৪:৪১ অপরাহ্ন

বিডি প্রতিবেদক উখিয়া :কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচলেট এর নেতৃত্বে ছয় সদস্যের প্রতিনিধি দল।
চার ঘন্টার সফরে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনারের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বর্তমান আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি, লিঙ্গ ভিত্তিক সহিংসতা সহ নানা বিষয়ে অবহিত হন। তবে গণমাধ্যমের সাথে কোন ধরণের কথা বলেননি প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।
১৬ আগস্ট) সকালে তিনি জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনের ৬ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধি দলসহ উখিয়া কুতুপালং শরনার্থী ক্যাম্পে পৌঁছে। সকালে মিশেল ব্যাচলেট জাতিসংঘের প্রতিনিধি দলসহ কুতুপালং ৪ নম্বর ক্যাম্পে এসে শরনার্থীদের রেজিষ্ট্রেশন সেন্টার পরিদর্শন করেন। কক্সবাজার শরনার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাশন কমিশন কার্যালয়ের অতিরিক্ত কমিশনার শামসুদ দৌজা নয়ন জানিয়েছেন শরনার্থী ক্যাম্প পরিদর্শনকালে মিশেল ব্যাচেলেট ইউএনএইচসিআর, ডব্লিউএফপি, আইওএম এর চলমান কার্যক্রম পরিদর্শনের পাশাপাশি রোহিঙ্গা নারী, যুব প্রতিনিধি,ধর্মীয় প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করেন। এ ছাড়া রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পে বৃক্ষ রোপণ কার্যক্রম এবং এর স্বেচ্ছাসেবকদের সাথেও কথা বলেন।
এদিকে সকাল সাড়ে ১০ টায় চার নম্বর বর্ধিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্র্যাকের কমিউনিটি সেন্টার পরিদর্শনে যান জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাই কমিশনার কার্যালয়ের প্রতিনিধি দলটি। সেখানে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন ও ক্যাম্পের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতিসহ নানা বিষয়ে ৯ জন ধর্মীয় নেতা এবং ৯ জন যুবকের সঙ্গে আলাপ করেন প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।
আলোচনায় অংশ নেয়া মৌলভী নাজির আহমদ জানান, প্রতিনিধি দলটিকে মিয়ানমারের পরিস্থিতির উন্নয়ন, রোহিঙ্গা অধিকার নিশ্চিত হলে স্বদেশে ফেরত যাওয়ার আগ্রহের কথা অবিহিত করেন। বাংলাদেশে আশ্রয় প্রদানের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে মিয়ানমারের সাথে আলোচনা করে দ্রুত প্রত্যাবাসনের উদ্যোগ গ্রহণের দাবি জানান।
যুবক মোহাম্মদ ইউসুফ জানান, প্রতিনিধি দলটিকে আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি সম্পর্কে জানতে চান। ক্যাম্প কেন্দ্রিক সংঘবদ্ধ অপরাধির তৎপরতা, হত্যা, অপহরণ, মুক্তিপন আদায়, মাদক ব্যবসা সহ সার্বিক পরিস্থিতির কথা প্রতিনিধিদের জানানো হয়। কিছু চিহ্নিত অপরাধি চক্র এমন অপকর্মে জড়িত থাকার বিষয় অবহিত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিও জানানো হয়।
দুপুরে কক্সবাজার শহরে ফিরে তিনি শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ রেজওয়ান হায়াত সহ সরকারের শরনার্থী ব্যবস্হাপনায় নিয়োজিত সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকে অংশ নেন।
সোমবার সন্ধ্যায় হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচলেট কক্সবাজারে আসেন। বাংলাদেশে জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের প্রথম কোনো প্রধান হিসেবে সফররত দক্ষিণ আমেরিকার দেশ চিলির সাবেক এই প্রেসিডেন্ট।
প্রসঙ্গত চারদিনের সফরে রবিবার ঢাকায় এসে পৌঁছান ব্যাচেলেট, সেদিন রাতে পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন সহ মন্ত্রিসভার সদস্যদের সাথে বৈঠক করেন তিনি।
মঙ্গলবার কক্সবাজার সফর শেষে পরদিন বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে তাঁর দেখা করার কথা রয়েছে।


আরো বিভিন্ন বিভাগের খবর