শিরোনাম :
কোটা আন্দোলন : কক্সবাজারে আওয়ামীলীগ, জাসদ, জাতীয় পার্টির কার্যালয়, মসজিদ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গাড়ি ভাংচুর; ছাত্রলীগ ৪ নেতাকে মারধর কক্সবাজারে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বিক্ষোভ মিছিল চট্টগ্রামে কোটা আন্দোলনে সংর্ঘষে নিহত ছাত্র আকরামের বাড়ী কক্সবাজারের পেকুয়ায় পেকুয়ায় দূর্যোগ প্রস্তুতি ও সাড়াদান বিষয়ক কর্মশালা ক্রিস্টাল মেথ আইস উদ্ধার পর্যটন শহরেও উত্তাপ ছড়ালো কোটা আন্দোলনকারীরা উল্টো রথযাত্রা মহোৎসব ১৫ জুলাই টেকনাফে জেন্ডার ও বিরোধ সংবেদনশীল সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণ মিয়ানমারের বিকট শব্দে আতংকে টেকনাফবাসী টেকনাফে ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্যের আবেদন

সড়কে পুলিশ পরিচয়ে ডাকাতি

নিউজ রুম / ৬ বার পড়ছে
আপলোড : বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৮:৩২ অপরাহ্ন

স্টাফ রিপোর্টারঃ
চকরিয়ার খুটাখালীতে গভীর রাতে মাইক্রোবাস যোগে স্বশস্ত্রধারী ডাকাতেরা পুলিশ পরিচয়ে মোটরসাইকেল গতিরোধ করে মহাসড়কে ডাকাতি করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
গত শনিবার রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের মহাসড়ক সংলগ্ন সেগুন বাগিচা সড়কের তত্তারব্রীজ নামক এলাকায় ডাকাতির এ ঘটনা ঘটেছে।

ডাকাতদের প্রহারে আহত হন-খুটাখালী বাজারের পান ব্যবসায়ী মোঃ ইলিয়াছ,দোকানদার গিয়াস,মোটরসাইকেল চালক পারভেজ ও ছোটন।
ডাকাতির শিকার ইলিয়াছ জানান,আমার বাড়ী বর্নিত ইউনিয়নের সেগুন বাগিচা এলাকায়।ঘটনার ঐরাত আড়াইটার দিকে পান ক্রয়ের উদ্দেশ্য ৪০হাজার টাকা নিয়ে বাড়ী থেকে বের হয়ে বাজারে যাচ্ছিলাম।এমতাবস্থায় ঘটনাস্থল তত্তারব্রীজে পৌঁছলে পুলিশের ড্রেস পরিধানকৃত দুইজন লোক আমাকে বহনকৃত মোটরসাইকেল গাড়ীটি সিগনাল দেয়।মোটরসাইকেল চালক গাড়ী স্লো করার সাথে-সাথে আমাদের দুইজনকে অস্ত্রধরে জিম্মি করে ফেলে।এরপর আমাদেরকে হাত-পা বেঁধে মুখেও কসটেপ লাগিয়ে দেয়।পরে আমার কাছে থাকা টাকা,স্ক্যানটাস সেট,চালকের কাছেও থাকা নগদ টাকা ও মোবাইল সেট নিয়ে,আমাদের দুইজনকে ধানক্ষেতে ফেলে রাখে।
এরপরে দোকানদার গিয়াস ও চালক পারভেজেরা বাজার থেকে যাওয়ার পথে তাদেরকেও একই স্টাইলে ধরে সবকিছু লুট করে।
এরপরে মোটরসাইকেল নিয়ে যাচ্ছিলেন ছোটন।তাকেও ধরে লুটপাট সহ আমাদের সকলকে মারধর করেছে এবং হাত-পা,মুখ বেঁধে ফেলে রেখে চলে যায় ডাকাতেরা।
তিনি আরো জানান,ডাকাতদের আনুমানিক সংখ্যা৭/৮ জন হবে।প্রত্যেকের হাতে অস্ত্র ছিল।যে কারণে আমরা চিল্লাচিল্লি করতে ভয় পেয়েছি।তাছাড়া আমরা ডাকাত দলের কাউকে চিনতে না পারায় আইনের আশ্রয় নিতেও পারছিনা বলে জানিয়েছেন এ ভূক্তভোগি।
খুটাখালীর প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার নুর মোহাম্মদ পেটান ডাকাতি বিষয়টির সত্য বলে শিকার করেছেন।তিনি বলেন,বিষয়টি এলাকার লোকজনের মুখে-মুখে হয়েছে।তাই ডাকাতির বিষয়টি প্রশাসনকে অবহিত করেছি।
খুটাখালী ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত চকরিয়া থানা পুলিশের এসআই মোঃ ইস্রাফিল বলেন,সড়কে ডাকাতি হওয়ার বিষয়টি কেউ আমাকে বা থানায় জানানি।তবু এখন যেহেতু জেনেছি,খোঁজ-খবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।


আরো বিভিন্ন বিভাগের খবর