শিরোনাম :
কোটা আন্দোলন : কক্সবাজারে আওয়ামীলীগ, জাসদ, জাতীয় পার্টির কার্যালয়, মসজিদ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গাড়ি ভাংচুর; ছাত্রলীগ ৪ নেতাকে মারধর কক্সবাজারে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বিক্ষোভ মিছিল চট্টগ্রামে কোটা আন্দোলনে সংর্ঘষে নিহত ছাত্র আকরামের বাড়ী কক্সবাজারের পেকুয়ায় পেকুয়ায় দূর্যোগ প্রস্তুতি ও সাড়াদান বিষয়ক কর্মশালা ক্রিস্টাল মেথ আইস উদ্ধার পর্যটন শহরেও উত্তাপ ছড়ালো কোটা আন্দোলনকারীরা উল্টো রথযাত্রা মহোৎসব ১৫ জুলাই টেকনাফে জেন্ডার ও বিরোধ সংবেদনশীল সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণ মিয়ানমারের বিকট শব্দে আতংকে টেকনাফবাসী টেকনাফে ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্যের আবেদন

পালিয়েও রক্ষা পেলেন না রোহিঙ্গা মজিয়া

নিউজ রুম / ৫ বার পড়ছে
আপলোড : বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১০:০৩ অপরাহ্ন

বিডি প্রতিবেদক ;
কক্সবাজারের উখিয়া থেকে আদালতে নেওয়ার পথে প্রিজন ভ্যান থেকে পালিয়ে গিয়েও রক্ষা পেলেন না অস্ত্র মামলার আসামী মজিবুল আলম মজিয়া (২৮)। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) শেষ রাতে উখিয়ার টাওয়ার এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। এসময় তার কাছ হতে অস্ত্র ও গুলি জব্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী।
আটক মজিবুল আলম মজিয়া উখিয়া কুতুপালং ক্যাম্প-২ ব্লক/ডি-১৩ এর দীন মোহাম্মদের ছেলে। গত ২২ অক্টোবর বিকেলে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের রামু সেনানিবাস এলাকা থেকে বমি ও প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেয়ার কথা বলে পুলিশের প্রিজন ভ্যান থেকে নেমে পালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি।
উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, মজিয়া পালিয়ে যাবার পর সেদিন প্রিজনভ্যানে দায়িত্বে থাকা পুলিশের পাঁচ সদস্যকে ক্লোজ করা হয়। পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুল ইসলামের নির্দেশক্রমে তাকে গ্রেফতারে থানা পুলিশ মাঠে ততপরতা শুরু করে। শুক্রবার রাতে মজিয়ার অবস্থান জানতে পেরে উখিয়ার রাজাপালং ইউপির ৯নং ওয়ার্ডে কক্সবাজার-টেকনাফ মহাসড়কের টিভি টাওয়ার এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। পাকা রাস্তার পশ্চিম পাশ হতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার কাছ হতে দেশীয় তৈরী একটি ওয়ান শুটারগান (এলজি) ও ১রাউন্ড শর্টগানের কার্তুজ জব্দ করা হয়েছে।
ওসি আরও বলেন, গ্রেফতারকৃত রোহিঙ্গা মজিবুল আলম মজিয়ার বিরুদ্ধে উখিয়া থানায় মামলা অস্ত্র আইনে মামলার পর আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত, গত ২২ অক্টোবর উখিয়া থানা থেকে প্রিজন ভ্যান করে ১২ আসামিকে আদালতে নেয়ার পথে রামু সেনানিবাস পর্যন্ত এসে হঠাৎ এক আসামি বমি করার কথা বলে পুলিশের সহায়তা চান। এ সময় তালা খুলে পলিথিন দিতে গেলে সেই সুযোগে গ্রেপ্তার রোহিঙ্গা মজিবুল আলম পালিয়ে যান। ###


আরো বিভিন্ন বিভাগের খবর