শিরোনাম :
কোটা আন্দোলন : কক্সবাজারে আওয়ামীলীগ, জাসদ, জাতীয় পার্টির কার্যালয়, মসজিদ, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও গাড়ি ভাংচুর; ছাত্রলীগ ৪ নেতাকে মারধর কক্সবাজারে মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের বিক্ষোভ মিছিল চট্টগ্রামে কোটা আন্দোলনে সংর্ঘষে নিহত ছাত্র আকরামের বাড়ী কক্সবাজারের পেকুয়ায় পেকুয়ায় দূর্যোগ প্রস্তুতি ও সাড়াদান বিষয়ক কর্মশালা ক্রিস্টাল মেথ আইস উদ্ধার পর্যটন শহরেও উত্তাপ ছড়ালো কোটা আন্দোলনকারীরা উল্টো রথযাত্রা মহোৎসব ১৫ জুলাই টেকনাফে জেন্ডার ও বিরোধ সংবেদনশীল সাংবাদিকতা প্রশিক্ষণ মিয়ানমারের বিকট শব্দে আতংকে টেকনাফবাসী টেকনাফে ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসার জন্য আর্থিক সাহায্যের আবেদন

রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে কনস্টেবল গুলিবিদ্ধ

নিউজ রুম / ৫ বার পড়ছে
আপলোড : বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৬:২১ অপরাহ্ন

কক্সবাজারের টেকনাফে নিবন্ধিত শরনার্থী শিবিরে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে মো. কাউসার নামের আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ান ( এপিবিএন) এর এক কনস্টেবল গুলিবিদ্ধ হয়েছে।
মঙ্গলবার দুপুর ১ টায় উপজেলার হ্নীলা ইউনিয়নের নয়াপাড়া শরণার্থী শিবিরে দায়িত্বরত অবস্থায় তিনি গুলিবিদ্ধ। তাঁর অবস্থা আশংকাজনক। বর্তমানে তিনি কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এপিবিএন সূত্র জানায়, সোমবার রাতে ৮-১০জন অজ্ঞাত অস্ত্রধারী রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা রোহিঙ্গা হাবিবুল্লাহ নামে এক যুবকের কাছ থেকে মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করলে ওই যুবক বাধা দেন।তখন তাকে গুলি করে আহত করা হয়।এতে ওই যুবকের পেটে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন।ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছেন।তারই সূত্র ধরে, একটি সন্ত্রাসী দল স্বশস্ত্র অবস্থানের খবর পেয়ে আই ব্লকে অভিযানে যান পুলিশ।এসময় মুখোশধারী স্বশস্ত্র রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা এপিবিএনের মুখোমুখি হয়ে এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করে পাহাড়ে দিকে পালিয়ে যান।এসময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে কনস্টেবল মোহাম্মদ কাউসারের পেটে গুলিবিদ্ধ হয়।পরে তাকে উদ্ধার করে রোহিঙ্গা শিবিরের স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়া হযেছে।
এবিষয়ে ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক ও অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ হাসান বারী নুর বলেন, রোহিঙ্গা শিবিরে অভিযান চলমান রয়েছে।এপিবিএন পুলিশ সদস্য কনস্টেবল মোহাম্মদ কাউসারের পেটে গুলি লেগেছে।তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।সে বতমানে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।সন্ত্রাসীদের আটকের ব্যাপারে অভিযান এখনো চলছে।


আরো বিভিন্ন বিভাগের খবর